প্রতিদিন ব্যায়াম করলে আপনার মস্তিষ্কের ক্ষমতা দ্রুত বৃদ্ধি পাবে


আপনার মস্তিষ্ক আপনার পুরো শরীরকে সচল রাখে। আপনার হাত, পা, কান, নাক, চোখসহ পুরো শরীরের সবকিছুই কার্যকরী রাখতে মস্তিষ্কের ব্যবহার প্রয়োজন।

কিন্তু আপনি কি জানেন যে, দিনে দিনে আপনার মস্তিষ্কের ক্ষমতা কমে যাচ্ছে?

জি। প্রত্যেক দিনই আপনার মস্তিষ্কের ক্ষয় হচ্ছে। আর আপনার শরীরের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ এই অংশটির ক্ষয় হওয়ার গতিকে অবশ্যই আপনাকে কমাতে হবে।

এর জন্যে আপনারকে প্রতিদিন তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মেনে চলতে হবে: ব্যায়াম, পর্যাপ্ত ঘুমস্বাস্থ্যকর খাবার

ব্যায়াম মস্তিষ্কের অনেক উন্নতি সাধন করে, যেমন:

* মস্তিষ্কের চিন্তাভাবনার ক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়;

* মানসিক অবস্থার বা মেজাজের উন্নতি সাধন করে; এবং

* শরীরের কার্যক্ষমতাকে ও মস্তিষ্কের কার্যকরীতা বাড়িয়ে দেয়।

ব্যায়াম আপনার মস্তিষ্কের সেরোটোনিন ** (serotonin)-এর মাত্রা বাড়িয়ে দেয়, যার ফলে আপনার মানসিক অবস্থায় বা মেজাজে ইতিবাচক (পজিটিভ) প্রভাব পরে। তাই তো প্রতিদিন ব্যায়াম করলে মানুষ খুশি ও উৎফুল্ল অনুভব করে।

তাছাড়া, ব্যায়াম করার ফলে আপনার শরীরের জড়তা কেটে যায়। ফলে সার্বিকভাবে আপনার মস্তিষ্কের কার্যকরীতা ও শরীরের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

অতএব, উপরোক্ত উপকারিতা গুলো ভোগ করার জন্যে প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন। হাঁটুন, দৌড়ান বা জিমে যান। কিন্তু যাই করুন তা প্রতিদিন করুন এবং অন্তত ৩০ মিনিট করুন।

আর আপনার মস্তিষ্কের চিন্তাভাবনার ক্ষমতাকে যদি অল্প সময়ের মধ্যে কয়েকগুণ বৃদ্ধি করতে চান, তাহলে প্রতিদিন ৩০ মিনিটের পরিবর্তে পুরো দুই (০২) ঘণ্টা করে ব্যায়াম করুন। তাহলে দেখবেন খুব শীঘ্রই আপনার মস্তিষ্কের সামর্থ্যের গুণগত উন্নতি সাধিত হয়েছে।

এই ক্ষেত্রে দুই ঘণ্টা একসাথে ব্যায়ামের প্রয়োজন নেই। এক ঘণ্টা করে দুইবার ব্যায়াম করুন।

আপনার মস্তিষ্কের ক্ষয় হওয়ার গতিকে কমাতে ব্যায়ামের উপকারিতার কথা এই পোস্টটিতে আলোচনা করা হয়েছে। উপরোক্ত উল্লেখিত তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের মধ্যে বাকি দুইটি বিষয় (অর্থাৎ পর্যাপ্ত ঘুম স্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কে) স্পটলাইট-এ পরবর্তীতে আলোচনা করা হবে।


** বৈজ্ঞানিক গবেষণা থেকে ধারণা করা হয় যে, মানব শরীরে থাকা ‘সেরোটোনিন’-এর কারণে মানুষের মধ্যে সুখের অনুভূতি বা বোধ জাগে।


Hits: 169

Leave a Reply

Your email address will not be published.